মেনু নির্বাচন করুন

জোয়াড়ীর জয়া রামের মন্দির

১ম বিশ্বযুদ্ধের প্রায় দুইদশক পূর্বে অর্থাৎ ঊনিশ শতাব্দীর প্রায় দশ বছর আগে তৎকালীন বৃটিশ শাসনামলের সময় রাজশাহী সাব ডিভিশনের অমর্ত্মগত নাটোর নামক মহাকুমার বড়াইগ্রাম নামের উপআঞ্চলিক এলাকায় নাটোরে ‘‘দিঘাপতিয়া রাজার’’ আপন সহদর রাজা দয়ারাম রায় এবং জয়রাম রায় যথা ক্রমে দয়ারামপুরে দয়রাম রায় এবং বড়াইগ্রামের পাশে জোয়াড়ী নামক গ্রামে ‘‘জয়রাম রায়’’ ঔপনিবেশিক শাসন এবং সার্ম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেন। ইতিহাস থেকে জানা যায় যে, ‘‘রাজা জয়রাম রায় এর একমাত্র কন্যার নাম শ্রীমতি জয়ারানী রায় ছিলো বলে অত্র এলাকায় নাম পরবর্তীতে জোয়াড়ী নামে অবহীত করা হয়।

রাজা জয়ারাম রায় সম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার সুবাদে জোয়াড়ী বাজারের কাছে বসত বাড়ী তৈরী করেন। তার বসত বাড়ীর সীমানা প্রাচীরের ভিতরে তিনি একটি কালী মন্দির, একটি শিব মন্দির এবং একটি দূর্গা মন্দির নির্মান করেন। যাহা বর্তমানে জয়ারামের মন্দির নামে পরিচিত। ধ্বংশ প্রায় মন্দির গুলিতে এখনও স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায় পূজা অর্চনা করে থাকেন। তবে তাদের বসত বাড়ী গুলি প্রায় ধ্বংস হয়ে বসবাসের অযোগ্য হয়ে গেছে।তারপরও কিছু গরীব হিন্দু সম্প্রদায় সেখানে বসবাস করে আসছেন।তবে মন্দির গুলি সংস্কার করলে ঔতিহ্যবাহী এ স্থানটি পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে পারে বলে এলাকাবাসী মত প্রকাশ করেন।


Share with :

Facebook Twitter